Badrinath Temple History in Bengali | বদ্রীনাথ মন্দিরের ইতিকথা ও যাত্রা পথ

Badrinath Temple History in Bengali

হিন্দু ধর্মের পূর্ণার্থীদের জন্য চার ধাম যাত্রা একটি খুবই উল্লেখযোগ্য মাত্রা বহন করে, বলা হয় চার ধাম যাত্রা একবারই করতে হয়, আর এই যাত্রার মন্দিরের মধ্যে বদ্রীনাথ মন্দির একটি।

যখনি দুনিয়াতে অধর্মের অত্যাচার বৃদ্ধি পায় সৃষ্টির পালনকর্তা ভগবান বিষ্ণু স্বয়ং আসেন ভক্তের রক্ষা করতে ও অধর্মের সংহার করতে। যেমন ত্রেতা যুগে রামেশ্বরম, দ্রাপর যুগের ধাম দ্বারকা, কলি যুগের ধাম পুরীকে মানা হয়।

তেমনই সত্য যুগের ধাম বদ্রীনাথ কে মানা হয়। বদ্রীনাথ ধামে ভগবান বিষ্ণু আজও বদ্রি নারায়ণ রূপে তপস্যা করছেন।

“দিল্লি থেকে ৫৩৭ কিলোমিটার দুরে অলক নন্দা নদীর পাড়ে, এবং নর ও নারায়ণ পাহাড়ের মাঝখানে অবস্থিত ভগবান বিষ্ণুর বৈকুন্ঠ লোক দুনিয়া যাকে আজকের দিনে বাবা বদ্রীনাথ ধাম নামে জানে। “

বলা হয়ে থাকে যে যায় বদ্রী সে না আসে অদ্রি, এই কথার মানে যে একবার বাবা বদ্রীনাথের দর্শন নেয় তাকে আর দুবার মায়ের গর্ভে জন্ম নিতে হয় না।

মন্দিরের পাশেই আছে তপ্ত কুণ্ড এই কুণ্ডের জল সব সময় ৪০ থেকে ৫০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় অবস্থান করে, এই কুণ্ডে স্নান করে মন্দিরের অধিকাংশ দর্শনার্থী।

বদ্রীনাথ মন্দির প্রতিষ্ঠা

অষ্টম শতাব্দীতে আদি গুরু শঙ্কর আচার্য পবিত্র বদ্রীনাথ ধাম মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন। যেখানে মার্কণ্ড শিলায় বসে ভগবান বিষ্ণু ৮৬ হাজার সাল পর্যন্ত তপস্যা করে ছিলেন।

মন্দিরে তুলসী পাতাতেই ভগবান বদ্রি সন্তুষ্ট হয়েযান। মন্দির খোলা থাকে প্রতি বছর অক্ষয় তিথির দিন হতে অক্টোবরের ১৫ থেকে ২০ তারিখ অব্দি।

মন্দিরের এক পশে নর পাহাড় এবং অপর পাশে নারায়ণ পাহাড় মাঝখানে সশব্দে প্রবল বেগে প্রবাহিত অলক নন্দা নদী। খুবই মনোরম পরিবেশে ভরপুর ভগবান বদ্রীনাথের মন্দির।

Badrinath Temple how to reach

বাবা বদ্রীনাথের মন্দির ভারতের উত্তরাখণ্ড রাজ্যের হিমালয়ের সুউচ্চ পর্বতে অবস্থিত, বদ্রীনাথ ধামে যাওয়ার যাত্রা উত্তরাখণ্ডের আরেক পূর্ণস্থান হরিদ্বার থেকে আরম্ভ হয়।

হরিদ্বার থেকে ৩৬০ কিলোমিটার যাত্রাপথে ঋষিকেশ, দেবপ্রয়াগ, ব্যায়াছি, কীর্তিনগর, শ্রীনগর, রুদ্রপ্রয়াগ, গোচক, কর্ণপ্রয়াগ, নন্দপ্রয়াগ, চামোলী, পিপলকটি, এবং হেলান, তারপরে আসে যোশীমঠ এবং বদ্রীনাথ ।

যোশীমঠে থাকা ও খাওয়ার ভালো বন্দোবস্তো আছে। বাসে যাত্রাপথে আনুমানিক ১২ ঘন্টা সময় লাগে হরিদ্বার থেকে বদ্রীনাথ মন্দিরে যেতে।

যাত্রা পথে কনকনে ঠান্ডার সাথে বিশাল বিশাল সুউচ্চ পর্বতের মাঝ দিয়ে বয়ে চলা অনেক ঝর্ণা এবং সবুজ প্রকৃতির অপরূপ রূপ আপনাদের মনে স্বর্গ দর্শনের আনন্দ দেবে।

Badrinath Temple History in Bengali

বিশেষ অনুরোধঃ পূর্ণধাম বাবা বদ্রীনাথ মন্দির সম্পর্কে সকলকে জানাতে ও দর্শন করতে যেতে সাহায্য করুন। পোস্টটি শেয়ার করার জন্য Social Media লিংক নিচে দেয়া আছে।

Read More:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here