বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় জীবনী | Bankim Chandra Chatterjee Biography Bengali

Bankim Chandra Chatterjee in Bengali

বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় ঊনিশ শতকের বাংলার প্রখ্যাত ঔপন্যাসিক, সাহিত্যিক, কবি, তার রচনা বঙ্কিম রচনাবলী নামে বিখ্যাত, কারণ তিনি তার লেখায় মাধ্যমে ভিন্ন স্বাতন্ত্রতা সৃষ্টি করেছেন।

বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় বাংলা সাহিত্যের চিরস্মরণীয় উজ্জল একটি নক্ষত্রের নাম তার অবদানে বাংলা ভাষায় গদ্য এবং উপন্যাসের একটি নতুন আধুনিক ঘরানা তৈরী হয়েছে।

Bankim chandra Chattapadhyay
Bankim Chandra Chatterjee

বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় জন্মগ্রহন করেন 27 June 1838 সালে, স্থান উত্তর চব্বিশ পরগনার কানথলপাড়া গ্রামে, নৈহাটির, একটি গোঁড়া বাঙালি ব্রাহ্মণ পরিবারে।

তার পিতার নাম যাদব চন্দ্র চট্টোপাধ্যায় ও মাতা দুর্গাদেবী, বঙ্কিমচন্দ্রের বাবা একজন পদস্থ সরকারি চাকরিজীবী ছিলেন, তিনি মেদিনীপুরের ডেপুটি কালেক্টর পদে নিযুক্ত হন।

বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় তার পিতা মাতার তিন সন্তানের মধ্যে সবার ছোট ছিলেন, বঙ্কিমচন্দ্রের এবং তার বড় ভাইদের স্কুল জীবন কেটেছে হুগলি কলেজিয়েট স্কুলে, তখন এটি ছিল একটি সরকারি জেলা স্কুল।

প্রতিভাবান বঙ্কিমচন্দ্র স্কুলে পড়ার সময় থেকেই কবিতা লেখা আরাম্ভ করেন, তার প্রথম কবিতা হুগলি কলেজিয়েট স্কুলে বসেই লিখে ছিলেন।

বঙ্কিমচন্দ্র হুগলির মহসিন কলেজ ও পরে কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে পড়াশোনা করেছিলেন, ১৮৫৮ সালে তিনি আর্টস নিয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন।

বঙ্কিমচন্দ্র কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন, 1858 তিনি তার বাবার মতই ডেপুটি কালেক্টর হিসেবে যশোরে নিযুক্ত হন, তিনি পরবর্তীতে আইনেও ডিগ্রি প্রাপ্ত করেন।

সরকারি চাকরি করার সময় বঙ্কিমচন্দ্র ব্রিটিশদের শোষণ ও মানুষের মনের কোনে জমতে থাকা স্বাধীনতার সংগ্রামের প্রতিধ্বনি অনুভব করেন।

Bankim Chandra – রাষ্ট্রীয় সংগীত রচয়িতা

ভারতীয় রাষ্ট্রীয় সংগীত বন্দে মাতরম Vande Mataram গানের রচয়িতা Bankim Chandra, এই সংগীত ব্রিটিশ বিরোধী ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের দেশ প্রেমিক সংগ্রামীদের কণ্ঠস্বর হয়ে উঠেছিল।

ভারতের সকল বিপ্লবী স্বাধীনতা সংগ্রামী এই গানটিকে তাদের মনে স্থান দিয়াছিলেন সংগ্রামের মন্ত্র হিসেবে সকল ধর্মের সংগ্রামীরা ব্রিটিশ শাসকের কাছে প্রাণ দেয়ার পূর্বে বন্দে মাতরম গেয়েছেন।

সর্ব কনিষ্ঠ বিপ্লবী ক্ষুদিরাম বসু ফাঁসির কাষ্ঠে নির্ভীক ভাবে দাঁড়িয়ে হাসতে হাসতে গেয়েছেন বন্দে মাতরম, বন্দে মাতরম মন্ত্রে ইংরেজরা এতটাই ভয়পেয়ে ছিলেন যে এই গানটি পরে তারা নিষিদ্ধ করেন।

বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় – সাহিত্যজীবন

বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় তার জীবনকালে যেসকল শ্রেষ্ঠ উপন্যাস রচনা করে ছিলেন তা আজও বাংলা সাহিত্যের অমূল্য সম্পদের অধিক মূল্যবান হয়ে রয়েছে। তার অজস্র লিখায় দেশপ্রেমের সতেজ ও অনুপ্রাণিত পটভূমি রয়েছে তার সাহিত্য রচনাবলী, বঙ্কিম রচনাবলী নামে উল্লেখ করা হয়। তার উল্লেখযোগ্য রচনার নাম বিবরণ নিচে দেওয়া হল।

বঙ্কিম রচনাবলী

  • দুর্গেশনন্দিনী – Durgeshnandini (১৮৬৫)
  • কপালকুণ্ডলা – Kapalkundala (১৮৬৬)
  • মৃণালিনী – Mrinalini (1869)
  • বিষবৃক্ষ – Vishabriksha – The Poison Tree, (1873)
  • ইন্দিরা – Indira (1873)
  • যুগলাঙ্গুরীয় – Jugalanguriya (1874)
  • রাধারানী – Radharani (1876)
  • চন্দ্রশেখর – Chandrasekhar (1877)
  • কমলাকান্তের দপ্তর – Kamalakanter Daptar
  • রাজনী – Rajani (1877)
  • কৃষ্ণকান্তের উইল – Krishnakanter Uil (Krishnakanta’s Will, (1878)
  • রাজসিম্হা – Rajsimha 1882
  • আনন্দমঠ – Anandamath (1882)
  • কমলাকান্ত – Kamalakanta (১৮৮৫)
  • সীতারাম – Sitaram (1887)

Bankim Chandra Died – বঙ্কিমচন্দ্রের মৃত্যু

বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় ৮ April ১৮৯৪ সালে শারীরিক অসুস্থতার জন্য কলকাতায় মৃত্যু বরণ করেন, তখন তার বয়স হয়েছিল মাত্র ৫৫ বছর।

আরও পড়ুন:

Leave a Comment