মার্কো মাতেরাজ্জি ফুটবলার জীবনী | Marco Materazzi Biography in Bengali

Marco Materazzi Biography in Bengali

মার্কো মাতেরাজ্জি ইতালির বিশ্বকাপ জয়ী জাতীয় দলের নামকরা ডিফেন্ডার ফুটবলার ২০০৬ বিশ্বকাপে ফাইনাল ম্যাচে ফ্রান্সের জিনেদিন জিদানের সাথে আলোচিত ঘটনা তার জীবনের সবচাইতে আলোচিত ও বিতর্কিত ঘটনা হয়ে রয়েছে।

তবে তার ফুটবল জীবন শুধু খেলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয় তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় করার পরে ফুটবল কোচিং এ ক্যারিয়ার তৈরী করেন। তার উদাহরণ, ভারতের ইন্ডিয়ান সুপার লিগের চেন্নাইয়ান এফসি দলের সাথে চুক্তিবদ্ধ হন ২০১৫ ও ২০১৬ আইএসএল এর জন্য।

Marco Materazzi in Bengali
Marco Materazzi (Wikipedia)

Marco Materazzi Biography in Bengali

Full Name:  Marco Materazzi

Date to Birth: 19 August 1973

Date of Place: Lecce, Italy

Height: 1.93m (6.4 in)

Position(s) Center Back

Youth Career: 1988-1990  Lazio

National Team: 2001-2008

Team Managed: 2014-2016 (Player Manager)

প্রাথমিক ফুটবল জীবন

মাতেরাজ্জি ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু হয় ইতালির প্রফেশনাল ফুটবল ক্লাব লাজিও (Lazio) তে খেলা মাধ্যমে সেখান থেকে তিনি চলে আসেন মিসিনা পেলেও  (Messina Peloro) যুবদলে সেখানে তিনি 1990-1991 মৌসুম খেলেন।

তার ফুটবল জীবনের শুরুর কিছু বছর তিনি ইটালির লোয়ার ডিভিশন বিভিন্ন ফুটবল ক্লাবে খেলেছেন, 1998-1999 মৌসুম তিনি কাটিয়েছেন এভারটন ফুটবল ক্লাবের  হয়ে কিন্তু সেখানে তাকে হতাশ হতে হয় কারণ তাকে খুব বেশি খেলার সুযোগ করে দেয়া হয়নি এই মৌসুমে তিনি মাত্র দুটি গোলই করতে পেরেছিলেন।

তবে তার খেলা জীবনে নতুন মোড় আসে 1999 পেরুগিয়া Perugia  ক্লাবে ফিরে এসে তিনি Serie A লীগ এর 2000-2001 ফুটবল সিজনে 7 টি  পেনাল্টিতে করা গোল সহমত 12 টি গোল করেন,তার এই পারফরমেন্সে তিনি একজন ডিফেন্ডার খেলোয়াড় হিসেবে সিরিয়া লীগের এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলদাতা ফুটবলার হয়ে ওঠেনতার আগে এই রেকর্ডটি ছিল আর্জেন্টিনার ডিফেন্ডার ড্যানিয়েল পাসারেলার দখলে, যিনি 1978 বিশ্বকাপ ফুটবল জয়ী আর্জেন্টিনার  ফুটবল দলের ডিফেন্ডার ফুটবলার ছিলেন।

মাতেরাজ্জির – 2002 বিশ্বকাপ ফুটবল

মাতেরাজ্জির ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবলে অভিষেক ছিল 2002 সালে জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ায় যৌথভাবে আয়োজিত বিশ্বকাপ ফুটবলে, তবে এই বিশ্বকাপে তার খেলায় খুব বেশি দর্শকদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে পারেননি তবে তিনি ইতালি দলের একজন নির্ভরযোগ্য ডিফেন্ডার হিসেবে পরিচিতি পান।

মাতেরাজ্জির – 2006 বিশ্বকাপ ফুটবল

2006 ফুটবল বিশ্বকাপ ছিল মাতেরাজ্জির জীবনের সফল একটি বিশ্বকাপ পুরো  টুর্নামেন্ট জুড়েই তিনি ছিলেন ইতালি দলের মজবুত একজন ডিফেন্ডার খেলোয়াড় এই বিশ্বকাপে তিনি প্রতিটি ম্যাচেই মাঠে নেমেছেন।

তবে  বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচে তার অবদানের জন্য ইতালি ফ্রান্সকে হারিয়ে 2006 ফুটবল বিশ্বকাপ নিজেদের করে নিতে পেরেছে, এই ফাইনাল ম্যাচে তিনি দুটি গোল করেন প্রথম গোলটি তিনি ম্যাচে সমতা ফেরানোর গুরুত্বপূর্ণ ও একমাত্র  গোলটি করেন, আর অপর গোলটি তিনি করেন পেনাল্টি শুটের সময় পেনাল্টি কিক থেকে।

2006 বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচ টি ইতালি ও ফ্রান্সের মধ্যে 1-1 গোলের ব্যবধানে অতিরিক্ত সময়ে খেলা হয় কিন্তু অতিরিক্ত সময়ে মধ্যে ফ্রান্স ইতালি কেউই জয়সূচক গোলটি করতে পারেননি এরপরে পেনাল্টি কিকের মাধ্যমে 5-3 এর ব্যবধানে ইতালি বিশ্বকাপ জয় করে।

এই খেলায় ফ্রান্স প্রথমে 1-0 ব্যবধানে এগিয়ে থাকে ফ্রান্সের সর্বকালের সেরা খেলোয়াড় দের মধ্যে একজন জিনেদিন জিদানের করা গোলের মাধ্যমে,  ইটালির মার্কো মাতাজি একমাত্র গোলটি করে খেলায় 1-1 সমতা ফেরান।

জিদানের সাথে বিতর্ক

উত্তেজনাপূর্ণ 2006 এর বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচ ইতালি ও ফ্রান্স যখন মাঠে 1-1 গোলের ব্যবধানে  তাদের 90 মিনিট খেলা শেষ প্রান্তে পৌঁছে গেছে তখনই ঘটে সেই অতি আশ্চর্য ঘটনা, ক্যামেরা তে ধরা পড়ে  জিনেদিন জিদান ও মার্ক মাতেরাজ্জির খেলার মাঠে পাশাপাশি দৌড়াচ্ছিলেন জিদানের দিকে তাকিয়ে মাতেরাজ্জির কিছু একটা বলে ওঠেন আর জিদান তার দিকে এগিয়ে গিয়ে কোন কথা না বলেই তার বুকের মধ্যে মাথা দিয়ে সজোরে ঢু মারেন।

এই ঘটনায় মাতেরাজ্জির মাটিতে লুটিয়ে পড়েন রেফারি বাঁশি বাজিয়ে খেলা বন্ধ করে ছুটে এসে এই কাজের জন্য জিদানকে বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচে লাল কার্ড দেখি এ বের হয়ে যেতে বলেন, এই ঘটনায় সমস্ত ফুটবল বিশ্বে স্তম্বিত শোকের আবহাওয়া নেমে আসে কারণ এটি ছিল ফ্রান্সের সেরা খেলোয়াড়  জিনেদিন জিদানের সর্বশেষ বিশ্বকাপ আর এই ম্যাচে তিনি তার নিজের কৃতিত্বে ফ্রান্স দলকে ফাইনালে নিয়ে এসেছেন ও ফাইনাল ম্যাচে গোল করেছে। 

তার মাঠের বাইরে চলে যাওয়া ফ্রান্স দলের মানসিকভাবে ভেঙে পড়ার অন্যতম একটি কারণ, অতিরিক্ত সময়ের পরবর্তীতে খেলাটি  পেনাল্টি শুট আউট এর মাধ্যমে হারজিত নিষ্পত্তি হয় ইতালি 5-3 এর ব্যবধানে বিশ্বকাপ নিজেদের ঘরে তোলেন।

পরিবার ও ব্যাক্তিগত জীবন

মার্কো মাতেরাজ্জি জন্মগ্রহণ করেছিলেন 19 আগস্ট 1973 সালে, জন্মস্থান লেকসে ইতালিতে তার বাবা ছিলেন একজন পেশাদার ফুটবলার তিনি সেখানে ইউএস লেসেসের হয়ে খেলেছিলেন। তার ফুটবল জীবনে হাতে খড়ি তার বাবার থেকেই হয়েছিল।

মাত্র 15 বছর বয়সে মাতেরাজ্জি তার মাকে হারান তার এক বোন রয়েছে। মাতেরাজ্জি 15 জুন 1997 তারিখে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন বান্ধবী ড্যানিয়েল এর সাথে তাদের পরিবারে তিনটি সন্তান রয়েছে তার সন্তানদের নাম আনা, ডেভিড এবং জিয়ান মার্কো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here