Rabindranath Tagore Biography in Bengali | কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর জীবনী

Rabindranath Tagore Biography in Bengali

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বিশ্ব বিখ্যাত বাঙালি কবি ও ঔপন্যাসিক, নাট্যকার, প্রাবন্ধিক, দার্শনিক, সংগীতজ্ঞ, চিত্রশিল্পী তার প্রতিভা ও সৃষ্টিশীলতা সম্পর্কে যতটা বর্ণনা করা যায় ততোই কম বলে মনে হবে।

প্রথম কোন ভারতীয় এবং বাঙালি হিসেবে তাকে তার সাহিত্য চর্চার জন্য ইংল্যান্ডের সর্বোচ সম্মানিক নাইট উপাধি দেয়া হয়েছিলো কিন্তু তিনি পরবর্তীতে সেটি একটি ঐতিহাসিক কারণে বর্জন করেন।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রথম কোন ভারতীয় হিসেবে প্রথম নোবেল পুরস্কার প্রাপ্ত করেন, কবি তার সাহিত্যে অবদানের জন্য বিশ্ব বিখ্যাত রচনাবলী গীতাঞ্জলীর জন্য এই নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হন।

কবি রবীন্দ্রনাথ সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পাওয়ার পরে তৎকালীন ভারতের আরেক মহান ব্যাক্তি ও বর্তমান স্বাধীন ভারতের জাতীয় পিতা মাহাত্মা করমচাঁদ গান্ধী কবিকে বিশ্ব কবির উপাধি প্রদান করেন।

Rabindranath Tagore রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, pic source: wikipedia

১৮৭৮ সালে রবীন্দ্রনাথ সুদূর ইংল্যান্ডে চলে যান ব্যারিস্টারি পড়ার উদ্দেশ্যে নিয়ে সেখানে প্রথমে তিনি একটি পাবলিক স্কুলে পড়াশোনা শুরু করেন, পরবর্তীতে ১৮৭৯ সালে তিনি ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনে আইনি বিদ্যা পড়া আরম্ভ করেন।

কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ইংল্যান্ডে পড়াশোনা করার কালে বহির্বিশ্বের সাহিত্য জগতের সাথে আরও বেশি পরিচিত হন এবং তার মনে সাহিত্যের সুদূর বিস্তার আরম্ভ হয়।

তার মনে ও ভাবনায় সাহিত্যের এতটাই বিস্তার ঘটেছিলো যে কবিকে তার ব্যারিস্টারি পড়া অসমাপ্ত রেখেই কোন ডিগ্রি না নিয়েই ভারতে ফিরে আসতে হয় ১৮৮০ সালে।

কবির বিবাহিত জীবন

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বিবাহ করেন ১৮৮৩ সালে ঠাকুর বাড়ির অধস্তন কর্মচারী বেণীমাধব রায়চৌধুরীর কন্যা ভবতারিণীর সাথে, বিবাহ পরবর্তী নাম পরিবর্তন করে তার নাম দেয়া হয় মৃণালিনী দেবী এই নামেই তিনি পরিচিতি পান।

কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও মৃণালিনী দেবী সন্তান সংখ্যা ছিলেন পাঁচ জন তারা হলেন মাধুরীলতা, রথীন্দ্রনাথ ঠাকুর, রেণুকা, মীরা ও শমীন্দ্রনাথ।

অনুরোধঃ
কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শ্রীচরণে শ্রদ্ধা ও প্রণাম রেখে আপনাদের উদ্দেশ্যে অনুরোধ আমাদের লেখায় কোন অনিচ্ছাকৃত ভুল মার্জনা করবেন, আপনি যদি আমাদের কাছে কবির সম্পর্কে কোনো ঘটনা বা বিশেষ তথ্যের সন্ধান প্রদান করার ইচ্ছারাখেন অনুগ্রহ করে আমাদের লিখুন।

আরও পড়ুন:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here