রাজেশ খান্নার জীবনী | Rajesh Khanna Biography in Bengali

Rajesh Khanna Biography in Bengali

রাজেশ খান্না সুপার স্টার জীবনী একজন ভারতীয় অভিনেতা, সিনেমা পরিচালক, এবং রাজনীতিবিদ, রাজেশ খান্না ভারতীয় ফিল্ম জগতের প্রথম সুপার হিরো।

সত্তরের দশকের মাঝামাঝি রাজেশ খান্নার একের পর এক সিনেমা সুপার ডুপার হিট হতে থাকে যার কৃতিত্ব সরূপ তিনি প্রথম কোন ভারতীয় নায়ক হিসেবে সুপার হিরোর মর্যাদা প্রাপ্ত করেন।

Rajesh Khanna
Rajesh Khanna

রাজেশ খান্নার পারিবারিক নাম যতীন খান্না, তার জন্ম 29 December 1942 সালে পাঞ্জাব রাজ্যের অমৃতসর শহরে হয়েছিল, রাজেশ খান্নাকে ভালোবেসে সবাই কাকা বলে সম্বোধন করতেন।

তার পিতার নাম লালা হিরানন্দ ও মাতার নাম ছিল চন্দ্রানী খান্না, তার পিতা ছিলেন হাই স্কুলের একজন হেডমাস্টার।

রাজেশ খান্নার জন্মস্থান এবং বাবার কর্মস্থল স্কুল বর্তমানে পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে অবস্থিত, রাজেশ খান্নাকে পরবর্তীতে তার একজন কাছের আপ্তিও দত্তক নেন।

তাদের নাম চূণীলাল খান্না ও লীলাবতী খান্না, তাদের কাছেই রাজেশ খান্না বেড়ে ওঠেন, চূণীলাল খান্না ভারতীয় রেলে কাজ করতেন এবং তিনি ১৯৩৫ সালেই লাহোর থেকে মুম্বাই শহরে চলে আসেন।

রাজেশ খান্না সেন্ট সেবাস্টিয়ান গোন হাইস্কুল এ পড়াশোনা করেন, সেখানেই তার পরিচয় ও বন্ধুত্ব রবি কাপুরের সাথে হয়েছিল, রবি কাপুর পরবর্তীতে ভারতীয় সিনেমার নায়ক Jeetendra জিতেন্দ্র নামে পরিচিত পান।

স্কুল ও কলেজে থাকার সময়েই রাজেশ খান্না থিয়েটার এ নিয়মিত অভিনয় করতেন এবং কলেজে অভিনয় করে বেশ কিছু অ্যাওয়ার্ড ও প্রাপ্ত করেন।

এই রকমই একদিন থিয়েটারে অভিনয়ের পরে এক জ্যাজ তাকে বলেন তোমার অভিনয় খুবই ভাল মানের তোমার অবশ্যই সিনেমায় অভিনয়ের চেষ্টা করা দরকার। সেই থেকেই কাকা বাবুর মনে সিনেমায় অভিনয়ের ইচ্ছা ও প্রচেষ্টা শুরু হয়।

কলেজ পড়া শেষ করার পরেই তার কাকা K K Khanna তার নাম যতীন খান্নার পরিবর্তে নতুন নাম রাজেশ খান্না করে দিয়ে ছিলেন।

সেই সময়ে ইউনাইটেড ফিল্ম প্রোডিউসার ট্যালেন্ট হান্ট প্রতিযোগিতা আয়োজন করতেন সেখানে অডিশন ও অভিনয়ের মাধ্যমে বিজিতদের সাথে নতুন সিনেমার অভিনয়ের সুযোগ করে দিতেন।

সুপার ষ্টার রাজেশ খান্না ও একজন ট্যালেন্ট হান্ট প্রতিযোগিতা বিজয়ী অভিনেতা, এই প্রতিযোগিতায় তাকে সেই সময়ের তাবড় তাবড় নামি ফিল্ম প্রোডিউসার দের সামনে অভিনয়ের সুযোগ করে দিয়েছিল।

Rajesh Khanna Biography Film – রাজেশ খান্নার সিনেমা

১৯৬৬ সালে রাজেশ খান্নার প্রথম সিনেমা মুক্তি পায় Aakhri Khat এই সিনেমাটি ভারতের পক্ষ থেকে অস্কার প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার জন্য মনোনীত করা হয়েছিল।

তার পরবর্তী সিনেমা ছিল Raaz এই সিনেমার ডিরেক্টর ছিলেন Ravindra Dave, তার অভিনীত সিনেমা ও অভিনয়ের প্রশংসা হলেও তখনও বক্স অফিসে তেমন সাফল্য ছিলনা।

তখন নামকরা ডিরেক্টর Shakti Samanta তার কাছে অভিনয়ের প্রস্তাব নিয়ে আসলেন আরাধনা Aradhana সিনেমার।

প্রাথমিক ভাবে রাজেশ খান্নার মনেহল এই সিনেমার কাহিনী হিরোইন কেন্দ্রিক আমি এখানে কি অভিনয় করবো বলে শক্তি সামান্তাকে অভিনয় করবেন না বলে দিলেন।

কিন্তু শক্তি রাজেশ খান্নাকে খুব বুঝিয়ে অভিনয়ে রাজি করলেন, 27 September, 1969 Aradhana আরাধনা, সিনেমা মুক্তি পাওয়ার পরের বাকিটা ইতিহাস হয়ে আছে।

Super Star Khanna – সুপার স্টার খান্না

আরাধনা তে অভিনয়ের পরে ও বক্স অফিসে ব্যাপক ঝাড়তোলার পরে রাজেশ খান্নার ক্যরিয়ার সুপারস্টার হওয়ার পথে এগিয়ে চলে একের পরে এক ছিনেমা হিট হতে থাকে।

আরাধনা পরবর্তী ভারতীয় হিন্দি সিনেমায় পরপর তার ১৬ টি সিনেমা সুপারহিট হওয়ার রেকর্ড তৈরী হয় যা হিন্দি সিনেমার ইতিহাসে নিজেই একটি ইতিহাস হয়ে আছে।

বলিউডের সেই সময়ের সকল ডিরেক্টরদের সাথে কাজ করেছেন তিনি, তার সিনেমায় সংগীত পরিচালনা করতেন সেই সময়ের বিখ্যাত সকল সুরকাররা।

তার জনপ্রিয়তা এতটাই ছিল যে প্রতিমাসে লক্ষ লক্ষ চিঠি ভারতের এবং ভারতের বাইরের বিভিন্ন স্থান থেকে রাজেশ খান্নার ভক্তরা তার উদ্দেশে পাঠাতেন।

এমন অনেক খবর বিভিন্ন মিডিয়াতে এসেছে যেখানে অনেক তার মেয়ে ভক্তরা তাকে ভালবেসে তার ছবির সাথেই বিবাহের বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন, বা তার ছবিকে বিয়ে করেছেন।

Rajesh Khanna Deth – রাজেশ খান্নার মৃত্যু

২০১২ সালে রাজেশ খান্নার শরীরের অবস্থা খারাপ হতে থাকে, বেশ কয়েকবার হাসপাতালে তিনি ভর্তিও থেকেছেন, কিন্তু 18 julay, 2012. Bollywood Superstar রাজেশ খান্নার জীবন অবসান হয়।

তার মৃত্যু শোকে সমস্ত Mumbai মুম্বাই শহর ও Bollywood Film Industry স্তব্ধ হয়ে যায়। ফিল্মি জগতের সকাল তারকারা তাকে শেষ দেখার ও বিদায় জানাতে তার বাস ভবনে ছুতে আসেন। কোটি কোটি ভক্ত দেড় চোখের জলে পৃথিবী থেকে চির বিদায় নেন কালের বলিষ্ঠ ও প্রথম হিন্দি সুপারস্টার মহানায়ন রাজেশ খান্না।

আরও পড়ুন:

Leave a Comment

error: Content is protected !!